1. admin@pekuanews24.com : admin-pekuanews :
  2. mdjalalpekua@gmail.com : jalal uddin : jalal uddin
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

পেকুয়ায় স্বামীর অমানুষিক নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যু

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২

পেকুয়া প্রতিনিধি;

ধামাচাপা দিতে স্থানীয় প্রভাশালীদের চেষ্টা

কক্সবাজারের পেকুয়ায় স্বামীর অমানুষিক নির্যাতনে এক সন্তানের জননী হুরি জন্নাত (১৫) নামের এক গৃহবধূর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারী) গভীররাত ২ টার দিকে উপজেলার উজানটিয়ার পশ্চিম উজানটিয়া পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ ওই এলাকার মোহাম্মদ হৃদয় প্রকাশ রিফাতের স্ত্রী।
ঘটনার খবর পেয়ে পেকুয়ার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, প্রায় দেড় বছর আগে একই এলাকার নেজাম উদ্দিনের পুত্র রিফাত পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মছন্ন্যাকাটা এলাকার আবু বক্করের মেয়ে হুরি জন্নাতের সাথে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের সম্পর্ক হয়। তারা উভয়ে পরিবারের অজান্তে বিয়ে করে। বিয়ের দেড় বছরের মাথায় তাদের কুলজুড়ে আসে একটি শিশু সন্তান। যার বয়স ৯ মাস। বিয়ের পর থেকে ওই মেয়ের উপর যৌতুকের দাবীতে নেমে আসে নানা অত্যাচার ও নির্যাতন। সবকিছু সহ্য করে সে সংসার করে আসলেও থেমে থাকেনি যৌতুকলোভী শ্বশুর-শাশুড়ী ও স্বামীর নির্যাতন। চালাতো যৌতুকের জন্য অমানুষিক নির্যাতন। স্থানীয়রা বার বার নির্যাতন না করার জন্য বারণ করলেও তারা এতে কর্ণপাত করেন নাই। রিফাত হুরি জন্নাতকে বিয়ে করার আগেও একই এলাকার একটি মেয়েকে বিয়ে করেছিল। যা হুরি জন্নাতকে জানানো হয়নি। সে বিয়ে করে নাই বলে মিথ্যা কথা বলে হুরি জন্নাতকে বিয়ে করে।

ঘটনার দিন সকালে নিহত গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে ঘটনাটি বললে লোকজন গিয়ে দেখে গৃহবধূ হুরি জন্নাতের নিথর দেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে দেখে পুলিশ কে খবর দেয়।

এদিকে নিহত গৃহবধূর পিতা আবু বক্কর কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার মেয়েকে তার শ্বশুর-শাশুড়ী,স্বামী রিফাত ও তার আগের স্ত্রী মিলে যৌতুকের জন্য শ্বাসরোধ করে মেরে ফেলে। পরে ষ্টোক করে মারা গেছে বলে নাটক সাজায়। আগেও কয়েকবার মারধর করলে বিষয়টি স্থানীয়দের জানালে তারা মিমাংসা করে দেয়। এরপর আবার নির্যাতন চালায়। সর্বশেষ ঘটনার দিনও তার স্বামী ও শ্বশুর-শ্বাশুরী মিলে আমার মেয়ে কে টাকা নিয়ে আসতে বলে মারধর করে পরে শ্বাসরোধ করে মৃত্যু নিশ্চিত করে। আমি আমার মেয়ের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবী করছি।
এদিকে ঘটনার পর পরই নিহত গৃহবধূর শ্বশুর-শাশুড়ী ও স্বামী পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) কানন সরকার জানান, লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ বলা যাবে। তবে প্রাথমিক তথ্যমতে গলায় কালো দাগ রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন........

© All rights reserved © 2020 Pekuanews24.com